1. dwipnews24.info@gmail.com : Dwip News 24 :
  2. editor@dwipnews24.com : Newsroom :
অফিসিয়াল সিন্ডিকেটের নিয়ন্ত্রণে মহেশখালী সাব রেজিস্ট্রারের কার্যালয় | দ্বীপ নিউজ
December 3, 2022, 12:16 am
শিরোনাম :
মহেশখালীতে পুকুরে ডুবে দুই শিশুর মৃত্যু মহেশখালী পৌরসভায় ট্রাকের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহীর শরীরের নিম্নাংশ বিচ্ছিন্ন মহেশখালী হাসপাতালে চালু হল নবজাতক পরিচর্যা কেন্দ্র মহেশখালীতে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হবে ‘আন্তর্জাতিক ইসলামী কনফারেন্স’ চিহ্নিত বালিখেকোদের সাথে বিট অফিসারের সখ্যতা, বন্ধ হচ্ছে না অবৈধ বালি উত্তোলন আপনার সাহায্যে বাঁচাতে পারে  কোরআনে হাফেজ জামাল উদ্দিন’র জীবন অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ, পেশা পরিবর্তনের পথে কোহেলিয়া নদীর জেলেরা মহেশখালীতে উপকারভোগীর টাকায় নির্মিত হচ্ছে মুজিববর্ষের ঘর! মহেশখালী থানা পুলিশের সাঁড়াশি অভিযানে ২৩ জন ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী আটক কালারমারছড়া ও ছোট মহেশখালীতে ঘরে আগুন লেগে এক শিশুর মৃত্যু, পার্শ্ববর্তী ঘরে ব্যাপক লুটপাট

অফিসিয়াল সিন্ডিকেটের নিয়ন্ত্রণে মহেশখালী সাব রেজিস্ট্রারের কার্যালয়

  • আপডেটের সময় : মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২১
  • 164 ভিউ

আ ন ম হাসান:

মহেশখালী উপজেলায় সাব-রেজিস্ট্রার অফিস নিয়ে অভিযোগের শেষ নেই। এই অফিসটি বর্তমানে ঘুষ দুর্নীতির আঁতুড় ঘরে পরিনত হয়েছে ৷
সরকারী এই কার্যালয়টি ঘুষ, অনিয়ম ও দুর্নীতির আখড়ায় পরিনত হয়েছে এমন পরিচিতিই ছড়িয়েছে উপজেলার সর্বত্রই । ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করে বলেন, সরকার ডিজিটাল প্রযুক্তি চালুর মাধ্যম দেশের প্রতিটি সাব-রেজিস্ট্রি অফিসকে দুর্নীতিমুক্ত রাখার ঘোষনা দিলেও মহেশখালী উপজেলার সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের কর্মরত কর্মচারীদের অবস্থান এর বিপরীতে, ফলে প্রকাশ্যে চলছে ঘুষ লেনদেনের কাজ।

ভোক্তভোগী সহ একাধিক সূত্রের অভিযোগ, সাব-রেজিষ্ট্রার অফিসের অনিয়ম দুর্নীতির পেছনে রয়েছেন সাব-রেজিস্ট্রার অফিসার বেলাল হোসেন। অফিসে কর্মরত অসাধু কর্মকর্তা কর্মচারীদের যোগসাজস করে তিনি হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা।
খবর নিয়ে জানা যায়, সাব-রেজিস্ট্রার বেলাল হোসেন অনিয়মিত অফিস করেন। সকাল ১০টার মধ্যে অফিসে আসার নিয়ম হলেও তিনি প্রায় সময়ে অফিসে আসেন বেলা ০১টার পর। টাইমের পরে এসে টাইমের আগে বেলা ৩টার মধ্যেই অফিস ত্যাগ করার জন্য তাড়াহুড়া করেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, মহেশখালীতে প্রতি সপ্তাহে দলিলের রেজিস্ট্রি হয়ে থাকে গড়ে ৬০-৭০টি। সেবা প্রার্থীরা রেজিস্ট্রি করতে এসে তাদের নির্ধারিত রেজিস্ট্রি ফি দলিল লেখকদের মাধ্যমে যথারীতি ব্যাংক ড্রাফট করে থাকেন। কিন্তু অফিসে দলিল নিয়ে গেলে শুরু হয় অপর নাটক। দলিলের বিপরীতে পরিশোধিত মুল্যের উপর অফিসের খরচ দেখিয়ে দলিল লিখক ও সেবা প্রার্থীদের এক প্রকার জিম্মি করে দলিল গ্রহীতার নিকট হতে প্রতিলাখের ২% টাকা আদায় করে নেয় অফিস কর্তৃপক্ষ।

এ নিয়ে সেবা গ্রহীতাদের আক্ষেপের শেষ নেই।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের এক কর্মচারী জানান, জনসাধারণের শারীরিক অক্ষমতা, অসুস্থজনিত কারণে সরকার কর্তৃক কমিশন ভিত্তিক দলিল করার নির্দেশনা থাকলেও বিভিন্ন সময়ে সাব-রেজিস্ট্রারগণ কিছু সংখ্যক অসাধূ কর্মচারীদের প্ররোচনায় টাকার মোহে বিভিন্ন মানুষের নিজ সুবিধার্থে কমিশনে কবলা করে দিচ্ছেন। আমরা সবকিছু জেনেও উর্ধতন কর্তাদের কাছে অসহায় থাকতে হয় ৷

এবিষয়ে বক্তব্য জানতে সাব রেজিস্ট্রার অফিসার বেলাল হোসেনের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ না করাতে বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি ৷
ভিন্ন সূত্রের তথ্যমতে , তিনি অপরিচিত নাম্বারের ফোন কল সহজে রিসিভ করেনা বলে জানা যায় ৷৷

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Comments are closed.

এই বিভাগের আরো খবর
© সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত © 2022 dwipnews24.net
Desing & Developed BY ThemeNeed.com
error: Content is protected !!