নিউজ রুম:-
করোনা রোগী চিকিৎসায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রস্তুতকৃত করোনা ব্লক ও হলিক্রিসেন্ট হাসপাতালের যাত্রা শুরু হয়েছে। চমেকের করোনা ব্লকটিতে একশ শয্যা এবং হলিক্রিসেন্ট হাসপাতালে ৮০ শয্যা নিয়ে কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে ভেন্টিলেশন সুবিধাসহ দশটি ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউ) বেড স্থাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন হাসপাতাল প্রশাসন।

আজ ২১ মে বৃহস্পতিবার সকালে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন ব্লকটি উদ্বোধন করেছেন। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিয়োগ প্রাপ্ত ৩০ জন চিকিৎসক ও ১৬৬ জন জন নার্স করোনা ব্লকে দায়িত্ব পালন করবে। হলিক্রিসেন্ট হাসপাতালেও শয্যা,অক্সিজেন লাইন প্রস্তুত সম্পন্ন হয়েছে।

দুপুরে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন করোনা বিশেষায়িত হলিক্রিসেন্ট হাসপাতালটিও উদ্বোধন করেছেন। এসময় তিনি ঘুরে ঘুরে হাসপাতালের চুড়ান্ত প্রস্তুতি কার্যক্রম পরিদর্শন করেন।

মেয়র বলেন, চমেকে স্বতন্ত্র করোনা ব্লক ও হলিক্রিসেন্ট হাসপাতাল চালু হওয়ার মাধ্যমে চিকিৎসা সেবার গতি একধাপ এগিয়ে গেল। চট্টগ্রামে দিন দিন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। সংক্রমণ বর্তমানে চরম আকার ধারণ করেছে। এতে করে চিকিৎসা সেবার চাহিদা দ্রুত বেড়ে যাচ্ছে। বর্তমানে চট্টগ্রামে করোনা চিকিৎসা সেবা কেন্দ্রের সংখ্যা দাঁড়ালো পাঁচটিতে। তিনি জনগণকে শারীরিক দূরত্ব, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ধৈর্য্যশীলতার সাথে দুর্যোগ মোকাবেলার আহবান জানান।

উদ্বোধনের সময় বিভাগীয় স্বাস্থ্য দপ্তরের পরিচালক ডা হাসান শাহরিয়ার কবির, জেলা সিভিল সার্জন ডা শেখ ফজলে রাব্বি, চমেক হাসপাতাল পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এস এম হুমায়ুন কবীর , চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের তত্ত¡াবধায়ক ডা অসীম কুমার নাথ, বিএমএ চট্টগ্রাম সভাপতি ডা মুজিবুল হক খান, সাধারণ সম্পাদক ডা ফয়সল ইকবাল চৌধুরী, প্রাইভেট ক্লিনিক এসোসিয়েশন সাধারণ সম্পাদক ডা লিয়াকত আলী খান,কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।