শফিউল আলম: (মহেশখালী)

জশনে জুলুস পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষ্যে ছোট মহেশখালী আহমদিয়া তৈয়্যবিয়া সুন্নিয়া দাখিল মাদ্রাসার মাঠে আহলে সুন্নত ওয়াল জামায়াতের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় বর্ণাঢ্য র‍্যালি, আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

এতে অংশ নিয়ে ফ্রান্সে মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়াসাল্লামের অবমাননার প্রতিবাদ জানিয়েছেন মুসল্লিরা।পাশাপাশি বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠায় রাসূল (স:) এর আদর্শ অনুসরণের আহ্বান জানানো হয়।

শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) সকালে ৯ টা বিশ্ব নবীভক্তের শ্লোগানে মুখর হয়ে ওঠে। বিশ্ব মানবতার মুক্তির দিশারী মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের আগমন ও ওফাতের দিনটিকে স্মরণে মহেশখালী অনুষ্ঠিত হয় জশনে জুলুস।

এতে উপস্থিত ছিলেন মহেশখালী – কুতুবদিয়ার মাননীয় সাংসদ সদস্য আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক, গাউছিয়া কমিটির সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান শামসুল আলম, আহমদিয়া তৈয়বিয়া সুন্নিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা ছিদ্দিক আযাদ, মৌলানা আব্দু সাত্তার, মৌলানা কাজী মোহাক্ষদ হোসেন, মহেশখালী উপজেলা যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক শেখ কামাল, এ্যাডভোকেট আবছার, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান উল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক তারেকুর ইসলাম, সহ অনেক উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কক্সবাজার-২ আসনের মাননীয় সাংসদ আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক এমপি বলেন – ইসলামের পথপ্রদর্শক মহানবী (সঃ) পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ট মানব ছিলেন এবং থাকবেন সারাজীবন। জাতীয়, আন্তর্জাতিক ভাবে প্রিয় নবী (স:) নামে যে যাই বলুক ওনাকে মহান আল্লাহ তায়লা সম্মানিত করবেন আজীবন।

তিনি আরো জানান, বাঙ্গালি জাতির ঐক্য এবং একতা তৈরির লক্ষ্যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে অসম্প্রদায়িক বাংলাদেশের সৃষ্টি, তিনি কিন্তু বাংলাদেশ সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিম সম্প্রদায়ের দেশে বলে ওআইসির সদস্য পদও লাভ করেন। পরিশেষে তিনি ফ্রান্সে হযরত মুহাম্মদ (স:) ব্যঙ্গ চিত্র প্রদর্শনের তীব্র নিন্দা জানায়।