দ্বীপ নিউজ ডেস্ক:

কক্সবাজার জেলা আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে মহেশখালী উপজেলা প্রেসক্লাব নির্বাচন। রাত পোহালেই শুরু হবে ভোটার কার্যক্রম। ভোটারদের ভোটগ্রহণ শুরু হবে সকাল ১০ টা থেকেই এবং বিকাল নাগাদ শেষ হবে এই কার্যক্রম।

৩১ শে জানুয়ারি মহেশখালী উপজেলা প্রেসক্লাবের দ্বি-বার্ষিক এই নির্বাচনে সভাপতি পদে ২ জন, সাধারণ সম্পাদক পদে ২ জন, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে ২ জন, কোষাধ্যক্ষ পদে ২ জন এবং দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক পদে ৩ জন সহ মোট ১১ জন প্রার্থী অংশগ্রহণ করেছে এই নির্বাচনে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসাবে দায়িত্বে রয়েছেন বড় মহেশখালী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হুমায়ুন কবির আজাদ।

গত ৮ জানুয়ারি তফশিল ঘোষণার পর থেকেই মহেশখালী উপজেলার গন্ডি পেরিয়ে কক্সবাজার জেলা জুড়েই বিস্তৃতি লাভ করে নির্বাচন টির প্রচার প্রচারণা।

উপজেলার ৮ ইউনিয়ন ও পৌরসভার বিভিন্ন গুরত্বপূর্ণ মোড় সমূহ ছেয়ে গেছে প্রার্থীদের অসংখ্য ফেস্টুন এবং পোস্টারে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরব সংগঠনটির সকল সদস্য সহ অসংখ্য শুভাকাঙ্ক্ষীরা।

সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ এবং উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হওয়ার পাশাপাশি, আলোচিত একটি ইতিহাস গড়তে ও নির্বাচনের ইতিবাচক ধারণা মহেশখালী বাসীকে দিতে চায় প্রার্থীরা।

বিপরীতে প্রেসক্লাবের প্রার্থীগণের আশা এবং সদস্যগণ সহ অসংখ্য শুভাকাঙ্ক্ষী, শুভাশিসরা উপহার পেতে চায় একটি নজিরবিহীন নির্বাচন। প্রার্থীরা প্রত্যাশা আর প্রাপ্তির সমন্বয় ঘটাতে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে বলে জানায় একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র।

এদীকে উক্ত নির্বাচনকে ঘিরে উপজেলা ছাড়াও, কক্সবাজার জেলা সহ চট্টগ্রাম বিভাগে পৌঁছে গেছে মহেশখালী উপজেলা প্রেসক্লাবের নির্বাচনের হাওয়া। জেলা ও উপজেলার অনেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিগণকে দেখা গেছে অনেক ইতিবাচক মন্তব্য করতেও।

কিন্তু এত আলোচনার কারণ জানতে মরিয়া অনেকে! কাকে ঘিরে বা কেন এত আলোচনা এই নির্বাচনকে নিয়ে। এবিষয়ে সংবাদকর্মী এম.এ.কে. রানা জানায়, মহেশখালী উপজেলা প্রেসক্লাবে শিক্ষিত, উদ্যোমী সাংবাদিক ও তরুণ সংবাদকর্মীদের ছড়াছড়ি। এর আগেও বিভিন্ন জায়গায় নির্বাচন হতে দেখেছি কিন্তু উপজেলা প্রেসক্লাবের যে সৌহার্দ্যপূর্ণ প্রচার – প্রচারণা এবং এক প্রার্থীর প্রতি অপর প্রার্থীর প্রতি আন্তরিকতা তা আমাকে খুবই মুগ্ধ করেছে। কোন প্রতিহিংসা ছাড়াই নিরপেক্ষ, সুষ্ঠু ও বন্ধুত্বপূর্ণ নির্বাচন যে করা সম্ভব তা আমার দেখা এই প্রথম মহেশখালী উপজেলা প্রেসক্লাব বুঝি প্রমাণ করবে।

উল্লেখ্য যে মহেশখালী উপজেলা প্রেসক্লাবে মোট ভোটার সংখ্যা ২৯ জন। উক্ত ভোটারদের নিয়ে রাত পোহালেই উৎসবমুখর নির্বাচন দেখবে পুরো মহেশখালী বাসী।