আশেকানে মাইজভান্ডারীদের ব্যাপক প্রস্তুতি

কক্সবাজার শহরের শহিদ দৌলত ময়দানে আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক ও যৌতুক বিরোধী শানে রিসালাত সুন্নী মহাসম্মেলন।

প্রধান অতিথি হিসেবে উক্ত সম্মেলনে অংশগ্রহণ গ্রহণ করবেন বংশানুক্রমে মহানবী (সঃ)’র ৩১তম পবিত্র বংশধর, ইন্টারন্যাশনাল পার্লামেন্ট অব ওয়ার্ল্ড সূফীজ এর প্রেসিডেন্ট মাইজভান্ডার দরবার শরীফের গদ্দীনাশীন পীর, হযরত শাহসূফী সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল হাসানী ওয়াল হোসাইনী আল মাইজভান্ডারী মাদ্দাজিল্লুহুল আলী।

সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব হাফেজ কেরামত আলী মাইজভান্ডারী জানান, বর্তমান জঙ্গিবাদ, মাদক, যৌতুক, সুদ ও ঘুষ এগুলো দিন দিন বেড়েই চলছে। আমাদের সরকারও চাই এসব অপকর্ম দেশ থেকে নির্মূল করতে। আমাদের আমন্ত্রিত প্রধান অতিথি তিনি এসব সামাজিক অপকর্মের সূচনালগ্ন থেকেই তার অবস্থান থেকে মানুষ কে সচেতন করছে এবং তিনি প্রতি বছর সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও মাইজভাণ্ডার দরবার শরীফে অন্যান্য অনুষ্ঠানের পাশাপাশি মাদক বিরোধী গণস্বাক্ষর অনুষ্ঠানও পরিচালনা করেন।

তিনি আরো বলেন, আমরা সবসময় সরকারের পজিটিভ কার্যক্রমে সহযোগিতা করি। তারই ধারাবাহিকতায় আমরা আগামী ১৮ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার এই সম্মেলন উদযাপন করছি।

তিনি জানান, এই অনুষ্ঠানে উদ্বোধক হিসেবে থাকবেন, কক্সবাজার পৌরসভা মেয়র জনাব মুজিবুর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন কক্সবাজার-৩ (রামু-সদর) আসনের সাংসদ জনাব সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি, কক্সবাজার-২ (মহেশখালী-কুতুবদিয়া) আসনের সাংসদ জনাব আশেক উল্লাহ রফিকসহ ওলামা মশায়েখ ও বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

ক্বুরআন সুন্নাহর আলোকে বিষয়ভিত্তিক আলোচনা করবেন দেশের সুফিবাদী প্রখ্যাত আলেম ওলামাগণ।

কক্সবাজারের সকল শান্তিপ্রিয় জনতাকে মাহফিল সফল করতে আহ্বান জানান সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক, হাফেজ নুরুল আবছার ইমন ও সদস্য সচিব, হাফেজ মাওলানা কেরামত আলী।

প্রসঙ্গত অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হযরত সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল হাসানী মাইজভাণ্ডারী (মাঃজিঃআঃ) যে সকল বৃহত্তর আন্তর্জাতিক সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেছেন তার একটি সংক্ষিপ্ত বিবরণ দেওয়া হলো-

২০০০ সালে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে The Millennium World Peace Summit for Religious & Spiritual Leaders এ তিনি তার মুর্শিদ ক্বেবলা ও পিতা “World Ahley Sunnat Wal Jamaat”র সাবেক প্রেসিডেন্ট, শায়খুল ইসলাম হযরাতুলহাজ্ব আল্লামা শাহ্সূফি সৈয়দ মইনুদ্দীন আহমদ আল হাসানী (কঃ) এর নেতৃত্বে বাংলাদেশী প্রতিনিধি দলের সদস্য হিসেবে অংশগ্রহণ করেন এবং জাতিসংঘ সম্মেলন কক্ষে বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় ইসলাম ও সূফিবাদের গুরুত্ব-তাৎপর্য তুলে ধরেন।

২০০৫ সালে ঘানা জাতীয় কাউন্সিল ও যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক “Universal Islamic Centre” আয়োজিত আন্তর্জাতিক ইসলামিক সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।

২০১৪ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের সানফ্রান্সিসকোতে “International Association of Sufism (IAS) আয়োজিত “International Sufi Symposium” এ প্যানেলিস্ট স্পিকার হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।

২০১৪ সালের ১৭-১৯ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ কোরিয়ার সিউলে আন্তর্জাতিক আন্তঃধর্মীয় সম্প্রীতি বিষয়ক অন্যতম শীর্ষ সংগঠন “Heavenly Culture, World Peace, Restoration of Light (HWPL)” আয়োজিত
“International World Alliance of Religions Peace Summit”এ প্যানেলিস্ট স্পিকার হিসেবে অংশগ্রহণ করেন এবং বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন।

২০১৫ ও ২০১৬ সালে মরক্কোর ঐতিহাসিক ফেজ শহরে
The International Academic Centre of Sufi and Aesthetic Studies (IACSAS) আয়োজিত Fez International Sufi Conference এ বিশেষ অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।

২০১৬ সালে ভারতের নয়াদিল্লীতে “All India Ulama Mashaeikh Board” আয়োজিত “World Sufi Forum”এ বিশেষ অতিথি হিসেবে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন তিনি।

২০১৬ সালে আলজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট আবদুল আজিজ বুতেফ্লিকার আমন্ত্রণে আলজেরিয়ার মোস্তাগানেমে আন্তর্জাতিক সূফি সম্মেলন বিশেষ অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন তিনি।

২০১৬ সালে ইন্দোনেশিয়ার পেকালংগনে ইন্দোনেশিয়া প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ও “Jamiate Ahley Tarikat Al Mutabarah An Nahdiyah” আয়োজিত “International Islamic Conference”এ প্যানেলিস্ট স্পিকার হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।

২০১৬ সালের ডিসেম্বরে তার সভাপতিত্বে ঢাকার কৃষিবিদ ইন্সটিটিউটে তার প্রতিষ্ঠিত আন্তর্জাতিক সূফি সংগঠন “Sufi Unity for International Solidarity (SUFIS) “1st International Sufi Conference” অনুষ্ঠিত হয়৷

২০১৭ সালের জানুয়ারিতে ভারতের রাজস্থান প্রদেশের আজমির শরীফে “Chishty Foundation” আয়োজিত “Inter-Religious Conference” বিশেষ অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।

২০১৯ সালের ৮-১০ এপ্রিল ইন্দোনেশিয়াতে ইন্দোনেশিয়া প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ও “World Sufi Forum” এর যৌথ আয়োজনে “The Role Of Sufism in Human Welfare & National Security” শীর্ষক সেমিনারে প্যানেলিস্ট স্পিকার হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।

২০২০ সালের ফেব্রুয়ারিতে তুরস্কের ইস্তাম্বুলে “International Academy of Sufi Scholars in Turkey” আয়োজিত “9th annual International Summit on Sufism/Tasawwuf”এ প্যানেলিস্ট স্পিকার হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।

বার্তা প্রেরক,
হাফেজ মুহাম্মদ কেরামত আলী
সদস্য সচিব,
সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি।
মোবাইল, ০১৮৫৬৭৭২০৯২