নিউজ রুম:

মহেশখালী উপজেলার বড় মহেশখালীর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ করোনায় আক্রান্ত।

গতকাল ২৫ শে মে কক্সবাজার সরকারি মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় ‘পজেটিভ রিপোর্ট’ পাওয়া ২৫ জন করোনা রোগীর মধ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলায় ৭ জন, চকরিয়া উপজেলায় ৮ জন, উখিয়া উপজেলায় ২ জন মহেশখালী উপজেলায় ১ জন এবং কুতুবদিয়া উপজেলায় ১ জন। বান্দরবান জেলায় ২ জন। ৪ জন রোহিঙ্গা করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে।

এনিয়ে কক্সবাজার জেলায় ২৫ মে সোমবার পর্যন্ত করোনা আক্রান্তে সংখ্যা হলো ৩৫২ জন। করোনা আক্রান্ত রোহিঙ্গা শরনার্থী ২৯ জন সহ মোট করোনা রোগী ৩৮১ জন।

২৫ শে মে সোমবার মহেশখালী উপজেলায় শনাক্তকৃত রোগীটা হলো কক্সবাজার-২ আসনের বর্তমান সাংসদ আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক এমপির চাচা এবং কক্সবাজার-২ আসনের সাবেক সাংসদ আলমগীর মুহাম্মদ মাহফুজ উল্লাহ ফরিদের ছোট ভাই, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আসদুল্লাহ সায়েম এর শ্রদ্ধেয় পিতা বড় মহেশখালী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মুহাম্মদ শহিদুল্লাহ চেয়ারম্যান।

আক্রান্ত সাবেক চেয়ারম্যান শহিদুল্লাহ সামাজিক সংক্রমেণের শিকার এবং ওনার শারীরিক অবস্থা খুব ভালো নয় এছাড়া তাঁকে আজ ২৬শে মে চট্টগ্রাম নিয়ে যাওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলে নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানতে পারি।

শনাক্তকৃত বড় মহেশখালীর সাবেক চেয়ারম্যান মুহাম্মদ শহিদুল্লাহ করোনা মুক্তির জন্য কক্সবাজার জেলাবাসীর কাছে দোয়া কামনা করেছে তাঁহার পরিবার।