ফুয়াদ মোহাম্মদ সবুজ, মহেশখালীঃ

কক্সবাজার-২ আসনের সংসদ আলহাজ্ব আশেক উল্লাহ রফিক বলেছেন, মহেশখালী এক সময় সন্ত্রাস, নৈরাজ্য ও আতঙ্কের নাম ছিল। এবং সেটি পুলিশ, র‌্যাব ও সাংবাদিকদের লিখুনির মাধ্যমে গোছাতে সক্ষম হয়েছে বর্তমান সরকার। জলদস্যু ও চিহ্নিত অপরাধীরা পর্যায়েক্রমে সরকারের কাছে আত্নসমর্পণের মাধ্যমে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছে। তিনি আরো বলেন বর্তমান সরকার বাংলাদেশের যত উন্নয়ন তার ৫০ ভাগ কক্সবাজারের মহেশখালীকে ঘিরে। অতিদ্রুত সময়ের মধ্যে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের অংশীদারত্ব হতে মহেশখালীর সাথে কক্সবাজারের সংযোগ সেতু বা ট্যানেল স্থাপন করবে সরকার।

বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৩ টায় মহেশখালী পৌরসভার ঘোনা পাড়াস্থ অহনা কনভেনশন হলে মহেশখালী থানার আয়োজনে বিট পুলিশিং সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত কক্সবাজার জেলা পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান বলেন, প্রতিটি ঘরে ঘরে মানুষের দূর গোড়ায় পৌছে দিতে বিট পুলিশ কার্যক্রম। দূর থেকে নয় তৃণমূল মানুষের নিকটে থেকে অভাব, অভিযোগ শুনা এবং সমাজ থেকে মাদক সন্ত্রাস নির্মুলে পুলিশ কাজ করবে। এজন্য সমাজের প্রতিটি স্থর থেকে সহযোগিতার আহ্বান জানান তিনি।

মহেশখালী থানা ওসি আব্দুল হাই’র সভাপতিত্বে ও ওসি তদন্ত আশিক ইকবালের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মাহফুজুর রহমান, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার জাহেদুল ইসলাম, মহেশখালী পৌর মেয়র আলহাজ্ব মকছুদ মিয়া, মহেশখালী উপজেলা আ.লীগের সভাপতি জেলা পরিষদ সদস্য আলহাজ্ব আনোয়ার পাশা চৌধুরী, মহেশখালী পৌরসভার প্রথম প্রশাসক ও মহেশখালী কমিউনিটি পুলিশের সভাপতি এম.আজিজুর রহমান, মহেশখালী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ আহমদ কবির, শাপলাপুর ইউপি চেয়ারম্যান এড. আব্দুল খালেক চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা ছালেহ আহমদ, জেলা পরিষদ সদস্য মশরফা জন্নাত, মহেশখালী প্রেসক্লাব সভাপতি আবুল বশর পারভেজ, গোরকঘাটা আল-জামেয়া ইসলামী মাদ্রাসার মুফতি মাওলানা আব্দুল গফুরসহ আরো অনেকে উপস্থিত ছিলেন। পরে আলোচনা সভা শেষে মহেশখালী পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের একটি বিট পুলিশ কার্যালয় উদ্বোধন করা হয়।