নুরুল বশর মহেশখালী কক্সবাজার

বই নিত্যদিনের সঙ্গী। পৃথিবীতে জানতে হলে বইয়ে বিভোর থাকার বিকল্প কিছু নেই। তবে সে বই হতে হবে মানসম্মত ও সুন্দর রুচিসম্পন্ন বই। বইয়ের পাঠক তৈরি করার লক্ষ্যে যাত্রা শুরু মহেশখালীর ০৮ নং কুতুবজুম ইউনিয়ন এর পাঠকপ্রিয় ও সাহিত্যপ্রেমী সংগঠন “বই পোকাদের আঁতুড়ঘর” এর ইফতার ও স্বল্প পরিসরে সৌজন্যেমূলক পরিচিতি পর্ব-মিলনমেলা সম্পন্ন হয়েছে। মহেশখালীর অন্যতম মাধ্যমিক শিক্ষাঙ্গন কুতুবজুম আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ক্লাস রুমে উক্ত অনুষ্ঠানের সমস্ত আয়োজন সম্পন্ন হয়। এতে উক্ত সংগঠনের ২৪ জন সদস্য উপস্থিত ছিলেন। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রথম আলো বন্ধুসভা, মহেশখালী উপজেলা শাখার পরপর দুইবার নির্বাচিত সভাপতি ইফতেখার মোহাম্মদ মোহাব্বত আলী, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মহেশখালীর হোয়ানক ইউনিয়নের কৃতি সন্তান বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে বর্তমান কর্মরত সৈনিক সাজ্জাদ শাকিল, আরো উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার সরকারি কলেজের বিএ দ্বিতীয় বর্ষে অর্ধয়নরত মেধাবী ছাত্রনেতা ও সাহিত্যপ্রেমী সাইয়েদ সাফওয়া সজীব। আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ তাদের উপস্থাপনায় বইয়ের গুরুত্ব ও সুস্থ মানসিকতার মানুষ হওয়ার ক্ষেত্রে বইপ্রেমী হওয়ার বিকল্প নেই তা সম্পর্কে বিস্তারিত ব্যাখ্যা করেন। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রথম পর্ব কুরআন তেলাওয়াত করেন সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ও সাংগঠনিক দক্ষতাসম্পন্ন শাহরিয়ার হোসাইন বিশাল। তারপর সিয়াম সাধনার তাৎপর্য বিষয়ক বক্তব্য এরপর পর্যায়ক্রমে হামদ-নাত পরিবেশন, বই বিষয়ক উপস্থাপনা, কবিতা আবৃত্তি এবং ইতিহাস নির্ভর তথ্য সংবলিত প্রশ্নের ভিত্তিতে কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন হয়। কুইজ প্রতিযোগিতা পর্ব সঞ্চালনার দায়িত্ব পালন করেন সংগঠনর গুরুত্বপূর্ণ সদস্য উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থী রায়হান মোহাম্মদ রোকন। কুইজ প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ঘোষিত হন সংগঠনের সিনিয়র সদস্য আল বয়ান। পুরো অনুষ্ঠানের যাবতীয় উপস্থাপন ও সঞ্চালনার দায়িত্ব এবং সমাপনী বক্তব্য রাখেন ‘বইপোকাদের আঁতুড়ঘর’ এর উদ্যোক্তা চট্টগ্রাম সরকারি কলেজের অনার্স তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী জিয়াউল মোস্তফা জিসান। উক্ত সংগঠনের মূল স্লোগান ‘গ্রন্থকীট তৈরি করাই আমাদের লক্ষ্য’ – উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে ইউনিয়নস্থ পাশ্ববর্তী এলাকার সকল বয়সী ছাত্রছাত্রীদের বইপ্রেমী করে গড়ে তোলার প্রয়াস গ্রহণ করা হয়।