মিজবাহ উদ্দীন আরজু, (মহেশখালী প্রতিনিধি):

মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়া ইউপিস্থ মোহাম্মদ শাহ ঘোনা সংযুক্ত কোহেলিয়া নদীতে ডুবে হালিম করিম নামে ১৩ বছরের এক স্কুল ছাত্র মারা গেছে।

১৩ আগস্ট (শুক্রবার) দুপুর ১টায় কালারমারছড়া ইউনিয়নের মোহাম্মদ শাহ ঘোনা গ্রামে কোহেলিয়া নদীতে এ ঘটনা ঘটে।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, হালিম করিম কালারমারছড়ার ফকিরজুম পাড়া গ্রামের মৃত আলী আহমদ বাবুলের পুত্র। তিন ভাই তিন বোনের মধ্যে হালিম করিম সবার ছোট। সে স্থানিয় কালারমারছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র।

সুত্রে জানা যায়, হালিম করিম ও তাঁর দুই বন্ধু একসাথে কোহেলিয়া নদীর মোহাম্মদ শাহ ঘোনা ঘাটকুল নামক স্থানে মাছ বাছতে যায়, মাছের বোট আসতে দেরি হওয়ায় পাশে থাকা অন্য একটি বোটে উঠে বসে খেলতে থাকে, পরে তাঁরা নদীতে নামে পানিতে খেলা করতে, তখন ছিলো দুপুর ১টা পূর্ণ জোয়ার। কিছুক্ষণ খেলার পর সাঁতার কেটে দুই দুই বন্ধু উঠে গেলেও হালিম করিম সাঁতার না জানায় নদীতে ডুবে যায়। তাঁকে খোঁজে না পেয়ে তাঁর সাথে থাকা দুই বন্ধু চিৎকার করলে; পাশের লোকজন এসে এক ঘন্টার মতো খোঁজাখুঁজির পর তাঁকে কোহেলিয়া নদী থেকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে।

হালিম করিমের মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করে কালারমারছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তারেক বিন ওসমান শরীফ শোক প্রকাশ করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

হালিম করিমের মৃত্যুতে এলাকায় নেমে আসে শোকের ছায়া।