ছবি: দ্বীপ নিউজ টোয়েন্টিফোর।

নিউজ ডেস্ক:

মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ী ইউনিয়নের প্রাক্তন ছাত্রলীগের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী উৎযাপন করা হয়েছে।

আজ ১৭ মার্চ। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১০২তম জন্মবার্ষিকী। এই দিনটি জাতীয় শিশু-কিশোর দিবস হিসেবেও উদযাপিত হয়। ১৯২০ সালের এই দিনে তিনি বৃহত্তর ফরিদপুর জেলার তৎকালীন গোপালগঞ্জ মহকুমার টুঙ্গীপাড়ার এক সম্ভ্রান্ত শেখ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। বঙ্গবন্ধুর পিতার নাম শেখ লুৎফর রহমান ও মাতার নাম সায়েরা খাতুন। চার ভাই ও দুই বোনের মধ্যে তিনি ছিলেন তৃতীয়। আজীবন সংগ্রামী বঙ্গবন্ধু তার গভীর রাজনৈতিক প্রজ্ঞা, আত্মত্যাগ ও জনগণের প্রতি অসামান্য মমত্ববোধের কারণেই পরিণত বয়সে হয়ে ওঠেন এক অবিসংবাদিত নেতা।

দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদা ও ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনায় নানা কর্মসূচি পালনের মধ্য দিয়ে উদযাপন করা হয়েছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং মুজিব বর্ষের বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে এবার উদযাপিত হয়েছে এ দিনটি। এর আগে বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মদিন থেকে শুরু হয় মুজিব বর্ষ। যা এবছরের ৩১ মার্চ পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে ঢাকা ও টুঙ্গিপাড়াসহ সারা দেশে নানান কর্মসূচি নেয়া হয়েছে।

তাঁরই অংশ হিসাবে আজ দ্বীপ উপজেলার মাতারবাড়ী ইউনিয়নের স্থানীয় সিএনজি ষ্টেশন সংলগ্ন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্রাক্তন নেতাকর্মীদের এক মিলনমেলায় উক্ত জন্মবার্ষিকী উৎযাপিত হয়।

ছবি: দ্বীপ নিউজ টোয়েন্টিফোর।

উক্ত কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন, মহেশখালী উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি ও মহেশখালী উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সেলিম উল্লাহ সেলিম, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য কাইছারুল ইসলাম কায়েস, মাতারবাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জিল্লুর রহমান, মাতারবাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক কামরুল হাসান হানিফ, মাতারবাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রাকিব উদ্দিন, মাতারবাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন সুজন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক আপ্যায়ন সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান, মাতারবাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি মামুনুর রশিদ কোকা, আব্দুর রহমান রিয়াজ, হাবীব হাসান, সুমন বাপ্পী এবং সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আশেক মাহমুদ, ইয়ার মোহাম্মদ চৌধুরী, সাদ্দাম হোসাইন, মোহাম্মদ তারেক, ইউনিয়ন শ্রমিকলীগের সভাপতি হাজী মানিক, সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ ও বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ মহেশখালী উপজেলা শাখার সভাপতি আশেক ইলাহি  সহ প্রমুখ।

এসময় গণমাধ্যমকে দেওয়া এক বক্তব্যে মহেশখালী উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি ও মহেশখালী উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক সেলিম উল্লাহ সেলিম বলেন, আজ মহেশখালী ও মাতারবাড়ীর প্রাক্তন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সমন্বয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী উৎযাপন করেছি। বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ। ক্রমান্বয়ে বলতে গেলে – এক দিনের কোকা থেকে শেখ মুজিবুর রহমান, শেখ মুজিবুর রহমান থেকে বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধু থেকে আজকের এই বাংলাদেশ। শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করে বলতে চাই, বঙ্গবন্ধু যদি বাংলাদেশ স্বাধীন না করতো আমরা স্বাধীন সার্বভৌমত্ব একটি রাষ্ট্র পেতাম না। বঙ্গবন্ধুর রক্তের যোগ্য উত্তরসূরী রাষ্ট্রনায়ক জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। জননেত্রীর এই অগ্রযাত্রা আরো শক্তিশালী করতে আমরা প্রাক্তন ছাত্রলীগ পরিষদ সর্বদা প্রস্তুত। মহেশখালী – কুতুবদিয়ার উন্নয়নের স্বপ্নদ্রষ্টা, দ্বীপরত্ন আশেক উল্লাহ রফিকের হাতকে আরো শক্তিশালী করতে প্রাক্তন ছাত্রলীগ পরিষদ সর্বদা প্রস্তুত।