দ্বীপ নিউজ ডেস্ক:

মাতারবাড়ীতে WPF’র কার্ড যাচাই- বাছাইয়ে ৫০০ টাকায় স্বাক্ষর বিক্রিতে মেম্বার শিমুল..

মাতারবাড়ী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোহাম্মদ শিমুলের বিরুদ্ধে WFP কতৃক প্রদানকৃত ত্রাণের কার্ড সত্যায়িত করতে গিয়ে স্বাক্ষর দিতে টাকা নেওয়ার অভিযোগ ওঠেছে।

চিনের উহান শহর থেকে নোবেল করোনা ভাইরাসের সূত্র পাত হিসাবে ধরা হলেও এখন সেই ভাইরাস ছড়িয়ে গেছে সারাবিশ্বে। ভাইরাস কবলিত দেশ হিসাবে বাংলাদেশে ও থমথমে অবস্থা বিরাজমান। কর্মহীন হয়ে পড়েছে লাখো মানুষ। কর্মহীন, ঘরবন্দী মানুষের পাশে দাঁড়াতে সরকার যেমন এগিয়ে আসছে সেই সাথে এগিয়ে আসতেছে জাতীয়, আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থা এবং এনজিও ইত্যাদি। ঠিক তার’ই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের মানুষের পাশে এগিয়ে এসেছেন আন্তর্জাতিক সংস্থা “WFP”।

করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় কক্সবাজার জেলার ছয়টি উপজেলার ৩ লাখ ৭৫ হাজার হতদরিদ্র মানুষকে খাদ্য ও আর্থিক সহায়তা করবে জাতিসংঘ বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি)। তারই ধারাবাহিকতায় মহেশখালী উপজেলার ১ নং মাতারবাড়ী ইউনিয়নে উক্ত ত্রাণ পৌঁছায়।

কয়েক ধাপে সংস্থাটি ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম চালু করেছেন ইতিমধ্যে। মহেশখালী মাতারবাড়ী ইউনিয়নে প্রথম ধাপে চাল বিতরণ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে দ্বিতীয় ধাপে নগদ অর্থ বিতরণ সম্পন্ন হয় কয়েকটি ওয়ার্ডে। ১৬ ই জুলাই বৃহস্পতিবার ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডে দ্বিতীয় ধাপের ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম শুরু। কিন্তু উক্ত কার্ডের সত্যতা যাচাই-বাছাই করতে স্থানীয়রা ৫নং ওয়ার্ডের মেম্বার শিমুলের কাছে স্বাক্ষরের জন্য গেলে তিনি কার্ড জব্দ করে ৫০০/১০০০ করে টাকা আদায় করছেন বলে জানান অভিযোগকারীরা।

বেশ কয়েকজন ভুক্তভোগীরা জানান, আমরা আইডি কার্ডের ফটোকপি এবং ছবি নিয়ে মেম্বারের কাছে স্বাক্ষরের জন্য গেলে তিনি, কাগজপত্রের সাথে টাকা দিলে স্বাক্ষর দিচ্ছেন নয়তো টাকা দিতে রাজি নাহলে কার্ড জব্দ করে রেখে দেন।
উক্ত অভিযোগের সত্যতা যাচাই করতে স্থানীয় ৫ নং ওয়ার্ডের মেম্বার শিমুলের সঙ্গে মুঠোফোনে বেশ কয়েকবার যোগাযোগ করতে চাইলে, ফোনে সংযুক্ত হওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাষ্টার মোহাম্মদ উল্লাহ বলেন, আমার কাছেও ইতিমধ্যে কয়েকজন ভুক্তভোগী হতে অভিযোগ এসেছে। তাছাড়া, আমি অভিযোগকারীদের বলে দিয়েছি স্থানীয় ওয়ার্ডের মসজিদের মাইকে বলে দিতে, টাকার বিনিময়ে স্বাক্ষর না নিতে এবং তিনি ত্রাণ কার্যক্রম চলাকালীন স্বাক্ষরবিহীন কাগজপত্রগুলোর ব্যক্তিদের নিজে উপস্থিত থেকে ত্রাণ প্রদান করবেন বলে আশ্বস্ত করেন।