নিউজ ডেস্ক:

বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের মেগা প্রকল্পের অন্যতম মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ী কয়লা ভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ প্রকল্প। সরকারের বড় বড় মেগা প্রকল্পের কাজের অগ্রগতিতে বাঁধা সৃষ্টি করতে জামায়াত – শিবিরের নীল নকশা বাস্তবায়নে প্রকল্পের অভ্যান্তরে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি নিয়ে সরকার বিরোধী নীল নকশা বাস্তবায়নে চেষ্টা চালাচ্ছে একটি কুচক্রী মহল।

মহেশখালীর স্থানীয় আওয়ামী লীগের তৃণমূল পর্যায়ের নেতা কর্মীরা অভিযোগ তুলে বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের চলমান বৃহৎ বৃহৎ প্রকল্প সমূহে সুকৌশলে দেশ বিরোধী অপশক্তি জামায়েতের নির্দিষ্ট এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে সরকারের অগ্রাধিকার ভিত্তিক প্রকল্প সমূহে বড় বড় পদ দখলে নিচ্ছে। এমন একজন মাতারবাড়ী কয়লা বিদ্যুৎ প্রকল্পের টিকাদারী প্রতিষ্ঠান পস্কোর চিফ সেফটি সিকিউরিটি পদে কর্মরত রাইহান উল হক চৌধুরী।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানাযায়, রায়হান চট্টগ্রামের আলোচিত বেশ কয়েকটি সংঘটিত খুনের সহযোগী ছিলেন, চট্টগ্রাম মহানগর শিবিরের সাবেক প্রভাবশালী ক্যাডার এবং মহেশখালী – কুতুবদিয়া আসনের সাবেক সংসদ জামায়াত নেতা হামিদুর রহমান আজাদের দেহরক্ষীও ছিলেন।

মহেশখালীর মাতারবাড়ী প্রকল্পে সংঘবদ্ধ হয়ে সিন্ডিকেট করে কাজ দেওয়ার বিনিমেয় কমিশন বাণিজ্যসহ চাকরী দেওয়ার নামে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা। প্রকল্পকে ঘিরে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করতে ও জামায়াত শিবিরের আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ ওঠেছে।

এমনকি অভিযুক্ত রাইহান অভিনব কায়দায় শিক্ষাযোগ্যতা সনদপত্র জালিয়াতি করে চাকরী নিয়েছে। এবং প্রকল্পের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান পস্কোর এডমিন সুমনের সাথে আঁতাত করে স্থানীয় পর্যায়ের লোকদের টাকা বিনিময়ে চাকরি দেয়।

বর্তমানে আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় থাকলেও জামায়াত শিবিরের নেতাকর্মীরা বর্তমান সরকারের মেগা প্রকল্পে বিভিন্ন কোম্পানিতে পদ দখল করে বসে আছেন এদিকে স্থানীয় ত্যাগী দলীয় নেতাকর্মীরা আজ কোনঠাসা বলে জানান তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

মাতারবাড়ীর চাকরি বঞ্চিত যুবকরা জানান, বাপদাদার জায়গাজমি দিয়েও একটা চাকরি পাচ্ছি না। ৪০/৫০ হাজার টাকা দিলে অনায়াসে মিলে চাকরি। অনার্স – মাস্টার্স সম্পন্ন করা মাতারবাড়ীর প্রতিটি ঘরে ঘরে অনেক যুবকরা বেকার অবস্থায় পড়ে আছেন। রাইহানের সাথে স্থানীরা সিন্ডিকেট তৈরি করে মোটা অংকেট টাকার বিনিময়ে দেয় চাকরি। স্থানীয় চক্রের মূলহোতাদের তৈরি করে সাপ্লায়ার হিসাবে।

মাতারবাড়ী কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্পে যত্রতত্র এমন অসংখ্য সিন্ডিকেটের কারণেই মাতারবাড়ীর স্থানীয় চাকরি বঞ্চিতরা দূর্দশায় পতিত হয়েছেন।