নিজস্ব প্রতিবেদক:

কক্সবাজার পৌরসভার আওতাধীন সাত্তার ঘোনা এলাকায় প্রবাসী বার্মায়া আবু তাহের ও তার আরেক সহযোগী আবুল হাশেম, আবু তাহেরের স্ত্রী জেসমিন আক্তার সহ বার্মায়া ওমর ফারুক সিন্ডিকেট জেলা প্রশাসনের ১ নং খাস খতিয়ানের জমি ক্রয় বিক্রয় করে পাহাড় কেটে প্লট বানিয়ে জমি বিক্রির গুরুতর অভিযোগ উঠেছে তাদের বিরুদ্ধে।

দীর্ঘদিন থেকে এই সিন্ডিকেট সরকারি সম্পদ লুটপাট করার চরম অভিযোগ থাকায় জেলা প্রশাসন একাধিকবার এদের বিরুদ্ধে অভিযান চালালেও কাজের কাছ কিছুই হচ্ছে না।
এই সব সরকারি জমি বিক্রি ও পাহাড় কাটার বিরুদ্ধে স্থানীয় সচেতন মহল কক্সবাজার জেলা প্রশাসক সহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন মহলের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

জানা যায়, প্রবাসী আবু তাহের আর আবু তাহেরের আরেক সহযোগী আবুল হাসেম তারা বর্তমানে বিদেশে বসবাস করছেন। তার স্ত্রী জেসমিন আক্তার ও ওমর ফারুক এই সিন্ডিকেট শক্ত হাতে চালিয়ে যাচ্ছে। সরকারি জমি প্লট বিক্রি করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে তারা।

একই সাথে নামে-বেনামে বিশাল পাহাড়ি এলাকা দখল অব্যাহত রেখেছে এই সিন্ডিকেট । এই জমি দেখাশোনার দায়িত্বে থাকা ওমর ফারুক প্রকাশ বার্মায় ফারুকের নেতৃত্বে পাহাড় কাটা ও প্লট বিক্রির ঘটনা কে কেন্দ্র করে সম্প্রতি একটি মারামারির ঘটনাও ঘটেছে। এলাকাবাসী পাহাড় কাটা বাঁধা প্রদান করায় ফারুকের ছেলেরা স্থানীয় লোকজনের উপর উল্টো চড়াও হয়ে মারধর করেছে।

করোনা ভাইরাসের ক্রান্তিকালের সময় কে কাজে লাগিয়ে এই সিন্ডিকেট আরো বেশি বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। এই বিষয়ে স্থানীয়রা সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন মহলের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেও কোনো সুরাহা হচ্ছে না। দিনের পর দিন তারা আরো বেশি সক্রিয় হয়ে উঠছে তাদের এই সিন্ডিকেট। স্থানীয় নিরীহ মানুষের সাথে প্রায় সময় নানা অপ্রীতিকর ঘটনার জন্ম দিয়ে চলছে তারা। সচেতন মহল পাহাড় কাটাসহ সরকারি জমি বিক্রি বন্ধের দাবি তুলছেন এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের আশরাফুল আফসার(এডিসি রাজস্ব) এর কাছ থেকে জানতে চাওয়া হলে অপরাধীদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান তিনি৷