অনলাইন ডেস্ক:

শ্রীলঙ্কায় তিন টেস্টের সিরিজ খেলতে যাওয়ার কথা ছিল বাংলাদেশের। আইসিসির এক বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে সাকিব আল হাসানও খেলায় ফিরতে পারতেন এ সিরিজ দিয়েই। সে লক্ষ্যে বিকেএসপিতে অনুশীলনও শুরু করেছিলেন তিনি। কিন্তু কোয়ারেন্টিন-জটিলতায় শ্রীলঙ্কায় আপাতত যাওয়া হচ্ছে না। তাই সাকিবও ফিরে যাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রে। আজ দিবাগত রাত ৩:৪৫ মিনিটে সাকিবের যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লাইট।

শ্রীলঙ্কায় টেস্ট সিরিজ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার কথা ছিল সাকিব আল হাসানের।

গত ২৫ দিন সাকিব বিকেএসপিতে ব্যস্ত ছিলেন একান্ত অনুশীলনে। তাঁর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার লক্ষ্যে অনুশীলন পরিকল্পনা সাজিয়েছিলেন বিকেএসপির ক্রিকেট উপদেষ্টা নাজমুল আবেদীন। অনুশীলনে সাকিবের সঙ্গে ছিলেন তাঁর শৈশবের কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিনও। নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত বিসিবির অনুশীলন সুবিধা ব্যবহার করার ব্যাপারে বিধিনিষেধ ছিল দেশের সেরা অলরাউন্ডারের। সে কারণেই নিজের ক্রিকেটার হয়ে ওঠার স্থান বিকেএসপিকেই বেছে নিয়েছিলেন তিনি।

২৯ অক্টোবর সাকিবের এক বছরের শাস্তির মেয়াদ শেষ হচ্ছে। ২৯ অক্টোবর সাকিবের এক বছরের শাস্তির মেয়াদ শেষ হচ্ছে।

আপাতত বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের কোনো আন্তর্জাতিক সূচি নেই। করোনা পরিস্থিতির কারণে গত মার্চ থেকে দেশে যাবতীয় ক্রিকেট-কার্যক্রমও বন্ধ। শ্রীলঙ্কা সফর যেহেতু হচ্ছে না, তাই বিসিবি ঘরোয়া ক্রিকেট দিয়েই খেলাটা মাঠে ফেরাতে চাচ্ছে।

সাকিব অবশ্য শ্রীলঙ্কার ফ্র্যাঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি লিগ এলপিএলের নিলামে ছিলেন। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে তিনি খেলতে পারতেন সেখানেও। কিন্তু বিসিবি এ মুহূর্তে বাংলাদেশের কোনো ক্রিকেটারকেই এলপিএলে যাওয়ার অনাপত্তিপত্র দেবে না। ক’দিন আগেই বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসান সেটি বলেছিলেন। তাঁর কথা ছিল, যেহেতু বাংলাদেশেই ঘরোয়া লিগ শুরু হয়ে যাচ্ছে, তাই খেলোয়াড়েরা এখানেই খেলবে।’