শফিউল আলম:

প্রায় টানা সাড়ে ৪ মাস পর নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ায় খুলে দেওয়া হয়েছে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত পর্যটকদের আগমন শুরু হয়েছে কক্সবাজারে।

সরকারি নির্দেশনা মতে, বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) সকাল থেকে খুলে দেওয়া হয় কক্সবাজারের সব পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্রগুলো।

তবে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে ঘুরতে আসা পযর্টকদের করোনা মহামারির কারণে যে নির্দেশনা তা মানতে উদাসীন সবাই।

তাদের নেই মাস্ক, নির্দিষ্ট দূরত্ব ও বজায় রাখাও হচ্ছে না। এক কথায় স্বাস্থ্যবিধি মানার কোনো চিত্র দেখা যাচ্ছেনা সৈকতে।

সমুদ্র সৈকতের কলাতলী, সুগন্ধা, পয়েন্টে এখন পর্যন্ত যে পর্যটকরা এসেছেন তারা যে যার মতো আনন্দ বা হৈ হুল্লোড়ে ব্যস্ত। পযর্টকরা কেউ কেউ সমুদ্র সৈকতে স্নান, বালিয়াড়িতে দৌড়ঝাঁপ, সূর্যাস্ত দেখাসহ বিভিন্ন আনন্দ-মুখর সময় পার করছেন কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে ঘুরতে আসা পযর্টকরা।

জেলা প্রশাসন ও ট্যারিষ্ট পুলিশ বলছে, কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে পযর্টকদের স্বাস্থ্যবিধি মানাতে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি।

তবে, করোনা মহামারির কারণে প্রায় সাড়ে ৪ মাস বন্ধ থাকার পর পর্যটন ও বিনোদন স্পটগুলো আবারও স্বরূপে ফিরে আসায় আশার আলো প্রত্যাশা করছেন হোটেল ব্যবসায়ীরা।